শু’টিং শেষ হলে নায়ক-নায়িকাদের পোশাকগুলোর কী হয় জা’নেন?

ছবির প’র্দায় তারকাদের নানা রকম ফ্যশনেবল জাঁকাল পোশাক পরতে দেখা যায়। এক একটি পোশাকের জন্য তাবড় তাবড় ডিজাইনারের মস্তি’ষ্ক থাকে। অনেক ছবির নায়ক বা নায়িকার পোশাক আবার ফ্যা’শনে ট্রে’ন্ড হয়ে যায়।

যেমন এক সময়ে বা’ন্টি বাবলি স্যুট ফ্যা’শনে ইন হয়। জব উই মেট ছবিতে করিনা কাপুরের হারেম প্যা’ন্ট রীতিমতো ফ্যা’শন দুনিয়ায় ঝ’ড় তু’লেছিল। কিন্তু ছবিতে তারা যে পোশাকগুলো পরেন, সেগুলো শু’টিং শেষ হলে কোথায় যায়। শুধু ফ্যা’শনেবল পোশাক নয়।

বিভিন্ন চরিত্রের জন্য বিভিন্ন রকমের পো’শাক বরাদ্দ থাকে। সেই পোশাক অন্য ছবিতে রি’পিট ক’রতেও দে’খা যায় না। তাহলে যায় কোথায় সেই পোশাকগুলো। এক স’র্বভারতীয় সংবাদমা’ধ্যমের প্র’তিবেদন থেকে এই র’হস্যের সমাধান হয়েছে বেশ কিছুটা। জা’না যাচ্ছে,

১)সব ক’স্টিউম সমান নয়। কিছু পোশাক দিব্য চলে দৈ’নন্দিনে। সাধারণ পোশাকগুলো রি’পিট করা হয়। যেমন ডেনিম প্যান্ট বা কোনও সলিড রঙের টিশার্ট জাতীয় পোশাক। কিছু একেবারে চি’ত্রনাট্যের আ’বদার মেনেই বানানো। কিছু আবার এতটাই চোখে পড়ার মতো যে, তাদের বা’ক্সবন্দি হয়েই থেকে যাওয়া ছাড়া গতি থাকে না।

২) ছবির শু’টিং শেষ হলে প্রো’ডাকশন হাউস ক’স্টিউমগুলোকে বাক্সবন্দি করে। পরে অন্য কোনও প্রো’ডাকশনেও তা কাজে লা’গানো হয় অনেক সময়ে।

৩) কোনও কোনও ক’স্টিউম অভিনেতারা পছন্দ করে সেটা কিনে নেন। কখনও আবার ডিজাইনার নিজে তার ডিজাইন করা পোশাকটিই নিয়ে নেন। ছবি হিট হলে ডিজাইনার সেই পোশাককে তার বিজ্ঞাপন হিসেবে ব্যবহার করেন।

৪) তবে সিরিয়ালের ক্ষে’ত্রে বিষয়টা একটু অন্যরকম। সিরিয়ালে বেশির ভাগ ক্ষে’ত্রে শাড়ি লেহেঙ্গা ইত্যাদি পরেন অভিনেতারা। সেই পোশাকগুলো রিসাইকলড হতেই থাকে। অন্য ধারাবহিকেও পরেন অভিনেতারা।